বুধবার, ০৫ মে ২০২১, ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য! রামপুরা থানার উপপরিদর্শক মোক্তারের আচরণে বিস্মিত

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য! রামপুরা থানার উপপরিদর্শক মোক্তারের আচরণে বিস্মিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : অবিশ্বাস্য হলেও সত্য! রামপুরা থানার উপপরিদর্শক মোক্তারের আচরণে হতবাক সবাই। রামপুরা থানার এক জন পুলিশ উপপরিদর্শক মোক্তার মনে হচ্ছে খুব অল্প কিছুদিন হয়েছে রামপুরা থানায় যোগদান করেছে। খিলগাঁও তালতলা মোড়ে মাসুমের মটর পার্টসের দোকানে বাংলাদেশের বলতে গেলে অনেক স্বনামধন্য ও গুনিজনেরা সন্ধ্যার সময় আড্ডা দেন বা সময় কাটান।

আজ ১৪ ফেব্রুয়ারী রাত ১০ টার সময় দোকানে রামপুরা থানার পুলিশ উপপরিদর্শক নাম মোক্তার এসে বলছে দোকান বন্ধ করতে, বলে সে চলে যান, সেসময় দোকানের মালিক মাসুম দোকানে উপস্থিত না থাকায় দোকান টি তাতক্ষনিক ভাবে বন্ধ করতে বিলম্ব হয়।

সে সময় দোকানে আগামীকাল ১৫ ফেব্রুয়ারী বিএনপির নির্বাচনের বিষয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি জনাব, ডাঃ আসাদুজ্জামান খান রিন্টু ভাই তারা বেশ কয়েকজন মিলে আলোচনা করছিলেন।

ঠিক সে সময়ই পুলিশ উপপরিদর্শক মোক্তার খুব রাগম্বিত স্বরে দোকান বন্ধ নিয়ে খুব বাজে আচরণ করতে থাকে সেখানে উপস্থিত সাংবাদিক তাকে আচরণের বিষয়ে সংযত হওয়ার কথা বললেই তার পরিচয় না জেনেই তার উপর চড়াও হয়ে তাকে টানা হেচরা শুরু করে দেন থানায় নেয়ায় জন্য, থানায় নিয়ে তাকে মামলা দিবেন বলে হুমকি দেন। এক পর্যায়ে সহ সভাপতি জনাব, ডাঃ আসাদুজ্জামান খান রিন্টু ভাই তার সাথে কথা বলতে চাইলেও তার সাথে খারাপ আচরন করেন।

পুলিশ উপপরিদর্শক মোক্তার খুব উচ্চস্বরে বলেন এখানে কোন পরিচয় চলবেনা, সাংবাদিকে সে থানায় নিবেই। পরবর্তিতে কিছুক্ষন পরে রামপুরা থানার আরেক পুলিশ উপপরিদর্শক এসে তাকে সান্ত করে নিয়ে চলে যান।

বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না উপস্থিত স্থানীয় সাংবাদিক জি-নিউজবিডি২৪ এর চীফ আমিনুল ইসলাম আমিন।

তিনি বলেন ১৯৯২ সাল থেকে নিষ্ঠা ও সততার সাথে সাংবাদিকতা পেশায় আছি। চেষ্টা করেছি বিপদগৃস্থ মানুষের সব সময় পাশে দাড়ানোর সেটা পুলিশ হোক বা সাধারণ জনগন। এটা কি মেনে নেয়া যায় ?

তিনি আরোও বলেন, শুধু রামপুরা থানা না বাংলাদেশের অনেক পুলিশ সদস্য থেকে অফিসারদের উপকার করেছি কারোও সাথে খারাপ আচরণ তো দুরের কথা আমার সাথে সাংবাদিক আর পুলিশ কোন পার্থক্য ছিলো না। সব সময় ভাইয়ের মত চলা ফেরা। তারাই বলতো আমিন ভাই হলো আমাদের পুলিশ প্রিয় সাংবাদিক।

বিষয়টা অনেক দূঃখজন। সব সময়ই উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা বলে আসছেন পুলিশ জনগনের বন্ধু আসলে কি তাই ?

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com