বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১০:৪৬ অপরাহ্ন

ইউরোপে করোনাভাইরাসে ১০,২০০ জন নতুন করে আক্রান্ত

ইউরোপে করোনাভাইরাসে ১০,২০০ জন নতুন করে আক্রান্ত

জন্স হপকিন্সের করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার আজ জানিয়েছে গোটা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এখন দু লক্ষ পঁচাত্তর হাজার চারশ বাহান্নো জন। এতে মৃতের সংখ্যা ১১,০০০ ছাড়িয়ে গেছে।

ইউরোপে শুক্রবার ১০,২০০ জনের নতুন করে আক্রান্ত হবার খবর পাওয়া গেছে এবং এ সপ্তাহের আগের দিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন যে চীনের পরিবর্তে এখন ইউরোপ হয়ে উঠেছে এই মহামারির কেন্দ্রবিন্দু। শুক্রবার পর্যন্ত ইউরোপে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৭,১০৮ জন এবং মারা গেছেন ৪,০৮৪ জন। স্পেন জানায় শুক্রবার সে দেশে ২৩৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে এবং ইটালির পর ইউরোপে স্পেনেই সর্বাধিক সংখ্যক লোক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। স্পেনের কর্মকর্তারা সতর্ক করে দিয়েছেন যে পরিস্থিতি সে দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবার নাগালের বাইরে চলে যেতে পারে। তারা মাদ্রিদের সম্মেলন কেন্দ্রকে অস্থায়ী হাসপাতালে রূপান্তরিত করার কথা ঘোষণা করেছে। এ সপ্তায় আরো আগের দিকে মাদ্রিদের একটি চার তারকা হোটেলকেও হাসপাতালে রূপান্তরিত করা হয়। জার্মানিতেও হোটেলগুলোকে অস্থায়ী হাসপাতালে পরিণত করা হচ্ছে এবং এর ফলে সেখানে নিবিড় পরিচর্যা করা যাবে আটাশ হাজার রোগীর। সে দেশে প্রায় কুড়ি হাজার লোক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে । কর্মকর্তারা আশংকা প্রকাশ করেছেন সামাজিক মেলামেশা বন্ধ করাসহ সাবধানামূলক উপযুক্ত ব্যবস্থা না নিলে সেখানে এক কোটির মোট লোক এই সংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্ত হতে পারেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন শুক্রবার রাত থেকে সে দেশে রেস্টুরেন্ট , পানশালা এবং অবকাশকালীন ব্যবসা বানিজ্যের ক্ষেত্রগুলো বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ষোলো হাজার এবং ১৯০ জন এরই মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্প প্রশাসন বানিজ্য ছাড়া কানাডা ও মেক্সিকোর সঙ্গে কার্যত সীমান্ত বন্ধ করার কথা ঘোষণা করেছে এবং স্বাস্থ্যকর্মী এবং প্রাইভেট সেক্টর যারা এই রোগের চিকিৎসায় প্রত্যক্ষ ভূমিকা পালন করছেন , তাদেরকে জরুরি চিকিৎসার জিনিষিপত্র সরবরাহের জন্য ফেডারেল আইন বলবৎ করেছে। সর্বস্প্রতি ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের লোকজনকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। গভর্ণর J.B. Pritzker. গতকাল ঘোষণা করেন যে ঐ রাজ্যের এক কোটি তিরিশ লক্ষ লোকের জন্য এই নির্দেশ আজ শনিবার বিকেল থেকে বলবৎ করা হবে। এক কোটি নব্বই লক্ষ লোক অধ্যুষিত নিউ ইয়র্ক রাজ্যের প্রায় সব লোকই ঘরে বন্দি রয়েছেন। নিউ জার্সি এবং অরেগন রাজ্যেও এ রকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গতকাল যুক্তরাষ্ট্র সরকার ঘোষণা করে যে কর দাখিলের শেষ তারিখ ১৫ই এপ্রিল থেকে ১৫ই জুলাইয়ে নেয়া হয়েছে এবং করদাতারা কোন রকম জরিমানা বা সুদ ছাড়াই এই বর্ধিত সময়ে তাদের কর দাখিল করতে পারবেন।

কিউবা গতকাল ঘোষণা করেছে, COVID-19 এর সংক্রমণ রোধ করতে তারা আগামি মঙ্গলবার থেকে সে দেশে কোন বিদেশি পর্যটককে প্রবেশ করতে দেবে না। এই নিষেধাজ্ঞা তিরিশ দিন ধরে অব্যাহত থাকবে। উল্লেখ করা যেতে পারে যে দেশটির অর্থনীতি প্রধানতঃ পর্যটন শিল্পের উপর নির্ভর করে। কিউবার প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল দিয়াজ কানেল রাষ্ট্রীয়

টেলিভিশিনে জানান , আর কেউ যাতে COVID-19 এ আক্রান্ত না হয় সে জন্যেই এই কড়া পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। কিউবা জানিয়েছে সে দেশে অন্তত ১৯ জন এই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং এতে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র আজ শনিবার সেখানে নতুন করে ১৪৭ জনের এই রোগে আক্রান্ত হবার খবর জানিয়েছে। করোনাভাইরাসে এশিয়ার এই দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্য ৮.৭৯৯ জন এবং প্রাণহানির সংখ্যা ১০২ জন ।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com