বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:৫৬ অপরাহ্ন

করোনা ভাইরাস আতংকে  আমতলী- তালতলীর বাজারগুলোতে নিত্যপন্যের দাম বৃদ্ধি  

করোনা ভাইরাস আতংকে  আমতলী- তালতলীর বাজারগুলোতে নিত্যপন্যের দাম বৃদ্ধি  

মল্লিক মো.জামাল,বরগুনা প্রতিনিধি।
করোনা ভাইরাস আতংকে বরগুনার আমতলী ও তালতলী উপজেলার বিভিন্ন বাজারগুলোতে এক দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে ৩০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। সাথে আলু ও চাউলসহ নিত্যপন্যের দাম বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ীরা কোন কারন ছাড়াই পেয়াজ, আলু ও নিত্যপণ্য মজুদ করে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। হঠাৎ নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
শুক্রবার সরেজমিনে আমতলী পৌর শহরসহ তালতলী উপজেলা সদরের বেশ কয়েকটি দোকান ঘুরে দেখাগেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে দোকানদাররা যে পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি করেছে এক দিনের ব্যবধানে সে পেঁয়াজ ৭০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। প্রতি কেজি আলু ১৫ টাকা থেকে বেড়ে ২৫ টাকা হয়েছে। ১২’শ টাকার বস্তার চাউল ১৬’শ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজ, আলু ও চাউলের পাইকারি মূল্য বৃদ্ধির অযুহাতে খুচরা বাজারের ব্যবসায়ীরা বেশি দামে তা বিক্রি করছে বলে জানাগেছে। একদিকে করোনা আতংক অরপদিকে হঠাৎ নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
ক্রেতা মোঃ নিজাম উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাজারে যে পেঁয়াজের প্রতি কেজি ৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে, শুক্রবার সেই পেঁয়াজ ৭০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের এমন দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আমি পেঁয়াজ না কিনেই বাসায় ফিরে এসেছি।
এদিকে আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মনিরা পারভীন শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত আমতলী পৌর শহরসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের বাজারের কাঁচামালের দোকানে অভিযান চালানোর পড়েও পেঁয়াজ, আলু ও চাউলসহ নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রনে আনতে পারেননি। যদিও তার অভিযানের সংবাদ শুনে অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ করে রেখেছিল।
আজ সন্ধ্যায় কথা হয় নতুন বাজার চৌরাস্তায় একটি মুদি মনোহরদি দোকানের ক্রেতা গৃহবধূ ছাবেরা পারভীন মুন্নীর সাথে, তাকে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়াতে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমতলীতে কি প্রশাসন নাই। ব্যবসায়ীরা শুরুটা করছে কি? আপনারা দেখেন না। আজ হঠাৎ করে পেঁয়াজ ও আলুসহ নিত্যপন্যের দাম তারা বাড়িয়ে দিয়েছে।
আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি না করতে ব্যবসায়ীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার বিভিন্ন দোকানে অভিযান পরিচালনা করেছি। তারপরেও যদি কোন বিক্রেতা বেশি দামে নিত্যপণ্য বিক্রি করে তাদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
অপরদিকে একই অবস্থা তালতলী উপজেলা সদরেও। এ উপজেলা বিভিন্ন দোকানে পেঁয়াজ, আলু ও চাউলসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। এখানে এক কেজি পেঁয়াজ শুক্রবার সকালে ৭০ টাকা দরে বিক্রি হওয়ার খবর শুনে তালতলী উপজেলা ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট উপজেলার বগী বাজারে অভিযান পরিচালনা করে দুটি দোকানে দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন। এ সংবাদ উপজেলার বিভিন্ন বিক্রেতাদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে বিকেল প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৫৫ টাকা দরে বিক্রি করার খবর পাওয়া গেছে। এখানে আলু ও চালসহ নিত্যপণ্যের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে বলে ক্রেতা শহিদুল ইসলাম জানান।
তালতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ সেলিম মিয়া, ৪০ টাকা কেজি দরের পেঁয়াজ ৭০ টাকায় বিক্রির সংবাদ পেয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দুই জন বিক্রেতাকে দুই হাজার টাকা জরিমানা করি। নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রনে না আসা পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com