বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিকের হাত ধরে উদাও দুই সন্তানের মা

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিকের হাত ধরে উদাও দুই সন্তানের মা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ বিয়ের পর অন্যের সাথে প্রেম। সেই প্রেমের টানে স্বামীকে ছেড়ে অন্যজনকে বিয়ে করে ঘর ছেড়েছে  প্রেমিকের হাত ধরে উদাও দুই সন্তানের মা। এদিকে মাকে হারিয়ে অসহায় দিন পার করছে দুই সন্তান। স্ত্রীর এ ঘটনা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন স্বামী।এ ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার (১০ মার্চ) ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের মাদারগঞ্জ কাঠালডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনায় স্থানীয়দের নিকট আলোচনার খোরাকে পরিণত হয়েছে।খোজ নিয়ে জানা গেছে, মাদারগঞ্জ কাঠালডাঙ্গী গ্রামের বাসিন্দা মৃত. ঘীর প্রসাদের মেয়ে বিশিনী রাণী এর সাথে এক যুগ আগে পার্শ্ববর্তী বালিয়া ইউনিয়নের তুরুকপথা গ্রামের মৃত. বিশু চন্দ্র রায়ের ছেলে জগেন চন্দ্র রায়ের সাতে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে জগেন তার শশুর বাড়ীতে বসবাস করে আসছিল।বিয়ের তিন বছর পর পাশের গ্রামের লক্ষী চন্দ্র রায়ের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে গোপনে বিয়ে করে বিশিনী রানী। গেল মঙ্গলবার সেই স্বামীর হাত ধরে পালিয়েছেন গৃহবধু।
গৃহবধুর প্রথম স্বামী জগেন বলেন, আমাদের বিয়ে হওয়ার ১২ বছর। আমার বাবা, মা না থাকায় আমার শশুর বাড়ীতে থাকি। আমার শাশুড়ী কিছুদিন আগে মারা গেছে। এ বাড়ীতে আমরা ছাড়া আর কেউ নেই। আমি আমার বউকে খুব ভালোবাসতাম। আমাদের সংসার খুব ভালো ভাবেই চলতেছিলো। আমাদের সংসারে দুই ছেলে সন্তান আছে। এ ঘটনায় আমার দুই ছেলেকে নিয়ে আমি এখন অসহায় হয়ে পড়েছি।জগেনের ধারণা তার বউকে লোভ দেখিয়ে, ভুল বুঝিয়ে সংসার নষ্ট করার জন্য পালিয়ে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছে লক্ষী চন্দ্র। লক্ষীর ভাই এভাবে অনেক পরিবার নষ্ট করেছে বলে জানান তিনি।লক্ষীর ভাই একই অপরাধে পলাতক উল্লেখ করে জগেন জানান, আমি এখন আমার দুই সন্তানকে নিয়ে বিপদে পড়ে গেছি। আমার যতটুকু সম্বল টাকা ও পঁয়সা ছিলো তা নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমি সরকারের কাছে ও প্রশাসনের কাছে বিচার চাই।বিশিনী রাণীর বড় ছেলে মানিক চন্দ্র(৮) বলেন,আমি আমার মাকে চাই। আমি আমার মাকে ছাড়া বাঁচবো না। লক্ষী নামে লোকটির বিচার চাই।
জগেনের স্ত্রী বিশিনী রাণী বলেন, আমি লক্ষীকে ভালোবাসি ৩ বছর থেকে আমরা প্রেম করি তাই বিয়ে করেছি।অভিযুক্ত লক্ষী চন্দ্র রায় বলেন, আমি তাকে ভালোবাসি তাই বিয়ে করেছি। আপনাদের কিছু করার থাকলে করেন।৬ নং আউলিয়াপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম মুঠো ফোনে বলেন,বিষয়টি আমি জানি, জগেন আমার কাছে অভিযোগ করেছে। আজকে সন্ধ্যায় বসার কথা আছে।উল্লেখ্য, লক্ষী চন্দ্র রায় (৪৫) একই গ্রামের মৃত. রুপ নারায়ণের ছেলে হালচাষ ব্যবসায়ী। তার সংসারে বউ ও দুই ছেলে আছে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com