রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৮:১০ অপরাহ্ন

বিশ্বনেতাদের শুভেচ্ছায় ভাসছেন বাইডেন-কমলা

বিশ্বনেতাদের শুভেচ্ছায় ভাসছেন বাইডেন-কমলা

এশীয়ান সংবাদ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন জো বাইডেন। আর তাঁর সহযোগী হিসেবে শপথ নিয়েছেন দেশটির প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। শপথ গ্রহণের দিন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের শুভেচ্ছায় ভাসছেন তাঁরা।

জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এক টুইটবার্তায় লেখেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার জন্য জো বাইডেনকে এবং ঐতিহাসিক অভিষেকের জন্য কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানাই। জলবায়ু পরিবর্তন থেকে শুরু করে কোভিড-১৯ পর্যন্ত যে বিষয়গুলো আমাদের সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ, সেসব ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব অপরিহার্য। আমি প্রেসিডেন্ট বাইডেনের সঙ্গে কাজ করার প্রত্যাশায় রয়েছি।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো টুইটে লেখেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষেকের দিন জো বাইডেনকে অভিনন্দন। আমাদের দুই দেশ ইতিহাসের বিভিন্ন বড় বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেছে। এবং আপনি, কমলা হ্যারিস ও আপনার প্রশাসনের সঙ্গে অংশীদারত্ব চালিয়ে যাওয়ার জন্য আমি প্রত্যাশায় রয়েছি।

বাইডেন ও কমলাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ লিখেছেন, ‘এমন উল্লেখযোগ্য দিনের জন্য মার্কিন জনগণকে শুভেচ্ছা। আমরা একসঙ্গে রয়েছি। আমাদের সময়ে আসা বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমরা শক্তশালী হব, আমাদের ভবিষ্যৎ গঠনে শক্তিশালী হব, আমাদের বিশ্বকে রক্ষায় আমরা শক্তিশালী হব।

এ ছাড়া জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।
মোদি টুইটে লেখেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের দায়িত্ব গ্রহণের জন্য জো বাইডেনকে উষ্ণ অভিনন্দন। আমি ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলগত অংশীদারত্ব জোরদার করতে তাঁর সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি।’ইমরান খান টুইটবার্তায় লেখেন, ‘অভিষেকের জন্য জো বাইডেনকে আমি অভিনন্দন জানাই।

বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক চুক্তি, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই, জনস্বাস্থ্যের উন্নতি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে শক্তিশালী পাক-মার্কিন অংশীদারত্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ টুইট করেন, ‘আজ একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসের প্রশাসন আজ থেকে তাদের যাত্রা শুরু করল। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গণতন্ত্র এবং আরো ন্যায্য, টেকসই ও বিশ্বব্যাপী শাসন ব্যবস্থার জন্য কাজ করব।

স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার দুপুরে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জন রবার্টসের কাছে শপথবাক্য পাঠ করেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। আর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস শপথ নিয়েছেন বিচারপতি সোনিয়া সোটোমেওরের কাছে। সংবাদমাধ্যম সিএনএন ও এনবিসি এ খবর জানিয়েছে।

নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্যে এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হয়। প্রথা ভেঙে নতুন প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দেননি বিদায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। শপথের আগেই হোয়াইট হাউস ছেড়ে ফ্লোরিডায় পাড়ি জমান তিনি।

শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, বিল ক্লিনটন ও জর্জ ডব্লিউ বুশ। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। ট্রাম্প না থাকলেও বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

শপথ নেওয়ার পর প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম ভাষণে বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। বাইডেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে বিভক্তিকে ছাপিয়ে সব সময় ঐক্যের জয় হয়েছে।

এ ছাড়া বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের সব মানুষের প্রেসিডেন্ট হওয়ার আশা ব্যক্ত করেন। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে শক্তিশালী যুক্তরাষ্ট্র গড়ে তুলতে চান বলেও অঙ্গীকার করেন।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com