January 20, 2020, 9:44 am

সংবাদ শিরোনাম :
ভারতে অবৈধভাবে বাস করা বাংলাদেশি মুসলিমকে ফেরত পাঠানো হবে :দিলিপ ঘোষ মিয়ানমারের সাথে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন চীনা প্রেসিডেন্ট পশ্চিমবঙ্গে ভোটার তালিকায় নাম তোলা বা সংশোধনের হিড়িক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ভারতের চলচ্চিত্র অভিনেত্রী শাবানা আজমি মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট এসএসসি পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন প্রকাশ ফাস্ট ট্র্যাক প্রকল্পের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মুজিববর্ষ উদ্যাপন উপলক্ষে মুজিব শতবর্ষ লোগো নির্দেশিকা প্রকাশিত প্রথম আলো সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার সঙ্গে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার সম্পর্ক নেই : ড. হাছান পরাজয় জেনেই বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে :ওবায়দুল কাদের বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশীপ ২০২০ রেফারিতে ডাক পেয়েছেন দেবীদ্বারের ময়নাল(ভিপি)
রামগঞ্জে সেশন ফি ছাড়া মিলছে না বিনামূল্যের বই

রামগঞ্জে সেশন ফি ছাড়া মিলছে না বিনামূল্যের বই

অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুর:
লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ভর্তি ফি ও সেশন ফি পরিশোধের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায় করছে উপজেলার ৩৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়। অতিরিক্ত টাকা না দিলে মিলছে না বিনামুল্যের সরকারি বই। শনিবার সরেজমিন ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায় রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়, রামগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ কয়েকটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। এ নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।
জানা যায়, বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী পৌর শহরে সর্বোচ্চ এক হাজার ও পৌর শহরের বাইরে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা সেশন ফি নেওয়ার বিধান থাকলেও কেউ তা মানছে না। ভর্তি ফি, আইসিটি ফি, উন্নয়ন ফি, খেলাধুলাসহ নানা খাত দেখিয়ে রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই হাজার ৫০ টাকা, রামগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এক হাজার ৬৫০ টাকা এবং পানপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এক হাজার ৪০০ টাকা সেশন ফি আদায় করছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক তাহমিনা আক্তার, রামগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সেলিনা আক্তারসহ কয়েকজন অভিভাবক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভর্তি ফি ও সেশন ফির নামে অতিরিক্ত টাকা দেওয়া খুবই কষ্টকর। এক সময় ৪/৫ শত টাকা দিয়ে বাজার থেকে নতুন বই কেনা যেত, তখন কোনো সেশন ফি ছিল না। সরকার বিনামূল্যে বই বিতরণ শুরু করার পর থেকে সেশন ফির নামে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন বলেন, ভর্তি না হলে নতুন বই দেওয়া যায় না। কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অন্যান্য খরচসহ সেশন ফি ধরা হয়েছে। নির্ধারিত টাকা জমা দিয়ে ভর্তি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নতুন বই দেওয়া হয়।
এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোনাজের রশিদ বলেন, বইয়ের সঙ্গে সেশন ফির কোনো সম্পর্ক নেই। সেশন ফি ছাড়াই প্রত্যেক শিক্ষার্থী বিনামূল্যের বই পাবে। সেশন ফির নামে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com