শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এদের মধ্যে দক্ষিণে ৭ ও উত্তরে ৬ জন রয়েছেন।
উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ করেন রিটার্নিং অফিসার মো. আবুল কাসেম।
ঢাকা উত্তরের মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আতিকুল ইসলাম নৌকা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ধানের শীষ, কমিউনিস্ট পার্টি মনোনীত ডা. সাজেদুল হক রুবেল কাস্তে, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) শাহিন খান বাঘ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের শেখ মোহাম্মদ ফজলে বারী মাসুদ হাতপাখা ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) আনিসুল হক দুলাল পেয়েছেন আম প্রতীক।
প্রতীক বরাদ্দের সময় উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মো. আবুল কাসেম প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘন না করার আহবান জানিয়ে বলেন, কোনো প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, নির্বাচন হলো একটি উৎসব। এই উৎসবকে আমরা কোনোক্রমেই সংঘর্ষে রূপ নিতে দেবো না। রাস্তাঘাট বন্ধ করে কোনো জনসভা করতে দেয়া হবে না।
এসময় প্রত্যেক মেয়র প্রার্থীকে একটি করে আচরণবিধি দেয়া হয় এবং প্রার্থীদের আচরণবিধি মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়। সেই সঙ্গে কোনো প্রার্থী রঙিন পোস্টার লাগাতে পারবেন না বলেও জানানো হয়।
আচরণ বিধিমালা শতভাগ মেনে চলতে হবে বলেও উল্লেখ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।
এদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বৈধ ৭ জন মেয়র প্রার্থীকে নিজ নিজ দলের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের রির্টানিং অফিসার আবদুল বাতেন প্রতীক বরাদ্দ দেন।
এই সিটিতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস নৌকা, বিএনপির ইশরাক হোসেন ধানের শীষ, জাতীয় পার্টির হাজী মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন মিলন লাঙ্গল, ইসলামী আন্দোলনের আবদুর রহমান হাতপাখা, ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টির (এনপিপি) বাহরানে সুলতান বাহার আম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের আকতার-উজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লা ডাব এবং গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন মাছ প্রতীক পেয়েছেন।
এছাড়া দুই সিটি কর্পোরেশনে ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যেও আজ প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। প্রতীক বরাদ্দের মধ্যদিয়ে প্রার্থীরা এখন আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় যেতে পারবেন। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২৮ জানুয়ারি রাত ১২টা পর্যন্ত প্রচারণা চালানো যাবে৷
প্রতীক বরাদ্দের অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা আবদুল বাতেন বলেন, প্রতীক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে প্রার্থীরা এখন আইন মেনে প্রচারণা চালাতে পারবেন। দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মাইকিং করে প্রচারণা চালানো যাবে।
তিনি বলেন, এসএসসি পরীক্ষার কারণে মাইকের শব্দ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।  একই সঙ্গে মাইকের ব্যবহারের জন্য অনুমতি নিতে হবে। অনুমতি না থাকলে মাইক জব্দ করা যাবে।
তিনি বলেন, প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনের অনুমতি নিয়ে ক্যাম্প স্থাপন করতে পারবেন। সেখানে শুধু নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন। কোন ধরনের মিছিল, শো-ডাউন, বড় ধরনের জনসভা ও তোরণ নির্মাণ করা যাবে না। তবে ঘরোয়া বৈঠকে প্রার্থীরা অংশ নিতে পারবেন।
আব্দুল বাতেন বলেন, অনেক প্রার্থীর পোস্টার লাগানো আছে বলে অভিযোগ এসেছে। যেসব প্রার্থীর পোস্টার আছে তাদের বিষয়টি তদারকি করতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেকে ইতোমধ্যেই নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com