বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৪০ অপরাহ্ন

সরকার চায় বিদেশ যাওয়ার সুযোগ সারাদেশে থাকুক :প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

সরকার চায় বিদেশ যাওয়ার সুযোগ সারাদেশে থাকুক :প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

সৌদি আরবে নারী কর্মি সুরক্ষায় নতুন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।
তিনি বলেন, ‘আমাদের নারী কর্মি যারা বিদেশে রয়েছে, আগের থেকে তারা অনেক সুরক্ষিত অবস্থায় আছে। এই অবস্থা আরও ভালো হবে। আমি বিশ্বাস করি, একজন নারী কর্মিও ওখান থেকে আর হয়রানি, বঞ্চনা ও লাঞ্চিত হয়ে ফিরে আসবে না। সৌদির সঙ্গে নতুন চুক্তি অনুসারে নির্যাতনের জন্য দায়ী গৃহকর্তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
আজ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
ইমরান আহমদ বলেন, ‘গত ১ ডিসেম্বর থেকে নারী কর্মি ফেরত আসার সংখ্যা আর ৩০ নভেম্বরের আগ পর্যন্ত ফেরত আসা নারী কর্মির সংখ্যার একটু তুলনামূলক চিত্র ভিন্ন রকমের। যেভাবে বিগত ১০ মাসে সৌদি থেকে নারী কর্মিরা ফেরত এসেছে, তার সঙ্গে ডিসেম্বরে ফেরত আসার সংখ্যার একটি বড় ধরনের ব্যবধান রয়েছে। এই সফলতা আসছে মন্ত্রণালয়ের সচিবের নেতৃত্বে সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে গত নভেম্বর মাসে জয়েন্ট টেকনিক্যাল কমিটির মিটিংয়ের পর থেকে।’
তিনি বলেন, গত বছর পর্যন্ত রেমিটেন্স ১৬ বিলিয়ন ডলার ছিল। এই বছরের প্রথম ছয় মাসের হিসেবে ২২ দশমিক ৫ শতাংশ উদ্ধৃত আছে। আমরা বিশ্বাস করি, বছর শেষে ২১ বিলিয়ন ডলারের ওপরে যাবে।
দক্ষ কর্মি পাঠাতে প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার করা হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক উপজেলায় টিটিসি করার উদ্দেশ্য হচ্ছে অনেক উপজেলা থেকে বিদেশ যাওয়ার মানুষ কম। সরকার চায় বিদেশ যাওয়ার সুযোগ সারাদেশে থাকুক। প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনি ইশতেহার অনুযায়ী প্রতি উপজেলা থেকে এক হাজার দক্ষ কর্মি বিদেশ পাঠানো হবে। এই টার্গেট পূরণ করার জন্য সব জায়গায় ট্রেনিং সেন্টার থাকা দরকার।
ইমরান আহমদ বলেন, অভিবাসী কর্মিরা বেশিরভাগই প্রতারিত হয়, তারা ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং জমি বাড়ি বিক্রি করে বিদেশ যায়। এই দৃশ্য সরকার বদলাতে চায়।
মন্ত্রী জানান, মালয়েশিয়ার নিজস্ব কারণেই সেদেশের শ্রমবাজার চালু হচ্ছে না। তবে শিগগিরই খোলার সম্ভাবনা রয়েছে।
ব্রিফিংয়ে মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা জানান, আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী মেলা ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।
তিনি জানান, অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বীমা পলিসি হস্তান্তরের মাধ্যমে প্রবাসী কর্মির বীমা কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। তিনি প্রবাসী কর্মির সন্তানদের হাতে শিক্ষাবৃত্তি তুলে দিবেন। অনুষ্ঠানে ১৪টি দেশের ৪২ জন প্রবাসীকে সিআইপি সম্মাননা দেয়া হবে। পাশাপাশি মুজিববর্ষ উপলক্ষে একটি ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ থাকবে মেলায়।
সংবাদ সম্মেলনে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস, বিএমইটির মহাপরিচালক শামসুল আলম, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, সাবিহা পারভীন, নাজিবুল ইসলাম ও শহিদুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com