October 13, 2019, 11:39 am

সংবাদ শিরোনাম :
তুরস্কের প্রতি হামলা বন্ধের আহ্বান নেটোর লোহিত সাগরের উপকূলে ইরানের তেলের ট্যাংকারে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের আক্রমণে এক লাখ মানুষ স্থানচ্যুত বিশ্বের উৎপাদিত ইলিশের প্রায় ৮০ শতাংশ আহরিত হয় বাংলাদেশে পাঁচ বছরে অতি দরিদ্রের হার ৫ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনা হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংগঠনিক রাজনীতির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন : শিক্ষামন্ত্রী দাবি মেনে নেয়ার পরও বুয়েটে আন্দোলনের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর গাইবান্ধায় পিতা কর্তৃক নিজ কন্যাকে শ্লিনতাইহানির অভিযোগ লক্ষ্মীপুরে সড়কে চাঁদাবাজি করায় ৯ জনের কারাদন্ড! বগুড়ার আদমদীঘিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত
সরকার রেলখাতকে অধিক গুরুত্ব দিয়েছে : নুরুল ইসলাম সুজন

সরকার রেলখাতকে অধিক গুরুত্ব দিয়েছে : নুরুল ইসলাম সুজন

রেলপথ মন্ত্রী মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার আলাদা রেলপথ মন্ত্রণালয় গঠন করেছে এবং রেল খাতের উন্নয়নে অধিক গুরুত্ব দিয়েছে। বর্তমানে সরকারের উন্নয়ন বাজেটের অন্যতম বড় গ্রহীতা রেলপথ মন্ত্রণালয়।
আজ রাজধানীর একটি হোটেলে বিশ^ব্যাংক কর্তৃক আয়োজিত ‘নলেজ এক্সচেঞ্জ ওয়ার্কসপ অন ডেডিকেটেড ফ্রেইট করিডোরস ফর বাংলাদেশ রেলওয়ে’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
রেলপথ মন্ত্রী বলেন, রেল সেক্টরের টেকসই উন্নয়নের জন্য বর্তমান সরকার ত্রিশ বছর মেয়াদী মাস্টার প্লান অনুমোদন করেছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম সেকশনের বেশীরভাগ অংশই ডাবল লাইনে রুপান্তর করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, রেলওয়ের একাধিক মেগা প্রকল্পের কাজ চলমান আছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প, দোহাজারী-কক্সবাজার ভায়া রামু এবং রামু হতে মিয়ানমারের গুনদুম পর্যন্ত রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্প, খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প, বঙ্গবন্ধু রেলসেতু নির্মাণ প্রকল্প ,এগুলো চলমান। এছাড়াও ঢাকা-চট্টগ্রাম হাই স্পীড ট্রেন নির্মাণ প্রকল্পের কাজ প্রক্রিয়াধীন আছে।
মন্ত্রী আরও বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেলওয়ের সার্বিক উন্নয়নে খুবই আগ্রহী এবং রেলওয়ের দুটি প্রকল্প ফাস্ট ট্র্যাক প্রকল্পের অন্তর্ভূক্ত করেছেন। বর্তমান সরকার রেল সেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে চেষ্টা করে যাচ্ছে। চলমান প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশ রেলওয়ে উন্নত বিশে^র পর্যায়ে চলে যাবে। রেলপথ মন্ত্রী বলেন, আমরা বিশ^াস করি আমাদের বিশ^স্ত উন্নয়ন অংশীদাররা লক্ষ্য বাস্তবায়নে আমাদের পাশে থাকবে।
তিনি বলেন, সরকার ৮৮ টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে বাংলাদেশ সরকার রেল যোগাযোগের পরিকল্পনা নিয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশে আঞ্চলিক রেল যোগাযোগ নেটওয়ার্কের সুবিধা তৈরী করা হয়েছে। এর ফলে নেপাল, ভুটান ও ভারতের দক্ষিণ পূর্ব অংশ বাংলাদেশের বন্দর সমূহ ব্যবহার করতে পারবে।
এ সময় প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী বক্তব্য রাখেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশ^ ব্যাংকের বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর মেরসি মাইয়ান টেমবন এবং রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মোফাজ্জেল হোসেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো: শামছুজ্জামান সহ রেলওয়ের কর্মকর্তাগণ তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com