বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০২:০৯ অপরাহ্ন

যুক্তরাজ্য সরকারের গোপন নথিতে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা

যুক্তরাজ্য সরকারের গোপন নথিতে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা

চুক্তিহীন ব্রেক্সিট হলে ব্রিটেনে ভয়াবহ বিশৃঙ্খলা হবে। দেখা দেবে খাদ্য ও জ্বালানি সংকট। ঔষধ সরবরাহে বিঘ্ন ঘটবে, রাজপথে বিক্ষোভ পাল্টা বিক্ষোভ চলতে থাকবে। এক গোপন সরকারী নথিতে এই তথ্য বের হয়ে এসেছে। এমপিদের চাপে জনসন সরকার বুধবার রাতে এই নথি প্রকাশে বাধ্য হয়েছে। অপারেশন ‘ইয়েলো হ্যামার’ নামে খ্যাত এই নথিতে বলা হয়েছে, ব্রেক্সিট বিষয়ে রাজনীতি দ্বিধা-বিভক্ত, সরকারের ব্যবসাখাতে প্রস্তুতি নেই। চুক্তিহীন ব্রেক্সিট হলে পণ্যবাহী লরিগুলোকে ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিতে কমপক্ষে আড়াইদিন অপেক্ষায় থাকতে হবে। এর ফলে খাদ্য সরবরাহ দ্রুত কমে যাবে। তখন অস্বাভাবিকভাবে খাদ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাবে।

সরকারী নথিতে আরো বলা হয়েছে, ইংলিশ চ্যানেলে ট্রাফিক ব্যবস্থা প্রথম দিনেই ৬০ ভাগ কমে যেতে পারে। আর এই বিপর্যয় স্থায়ী হবে কমপক্ষে তিনমাস। যানজটের ফলে জ্বালানি সরবরাহ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। লন্ডন ও দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে জ্বালানি সরবরাহের সংকট সৃষ্টি হবে।

উল্লেখ্য যে, গত সোমবার এমপিরা চুক্তিহীন ব্রেক্সিট নিয়ে যেসব গোপন ইমেইল বা নথি আদান প্রদান হয়েছে তা জনসম্মুখে প্রকাশ করার জন্য সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করেন। এ ব্যাপারে একটি মোশনও পার্লামেন্টে পাস হয়। এর প্রেক্ষিতেই সরকারের তরফে গোপন নথি প্রকাশিত হয়। যদিও বিরোধী লেবার পার্টি বলেছে এগুলো যথেষ্ট নয়, খণ্ডিত কিছু নথি প্রকাশ পার্লামেন্টের ইচ্ছার বরখেলাপ।

ওদিকে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বৃহস্পতিবার বলেছেন, তিনি পার্লামেন্ট স্থগিতের বিষয়ে রানীকে কোন ভুল পরামর্শ দেননি। পার্লামেন্ট স্থগিতকে স্কটিশ আদালত বেআইনি বলার পর এমপিদের তরফে দাবি উঠেছে, দ্রুত হাউজ অব কমন্সের কার্যক্রম চালু করতে। সরকার বলছে, এটা এখনি নয়। আগামী মঙ্গলবার সুপ্রিমকোর্ট যদি চূড়ান্ত রায় দেয় তখনি সিদ্ধান্ত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com