শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০৫:০০ অপরাহ্ন

গাইবান্ধায় পুলিশের প্রচেষ্টায় ট্রেনের ছাদের যাত্রী নামিয়ে লালমনি এক্সপ্রেসকে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা

গাইবান্ধায় পুলিশের প্রচেষ্টায় ট্রেনের ছাদের যাত্রী নামিয়ে লালমনি এক্সপ্রেসকে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা

 

এইচ.আর.হিরু.গাইবান্ধাঃ
ট্রেনের ছাদে অতিরিক্ত যাত্রী ওঠায় একাধিক বগির স্প্রিং দেবে গিয়ে দুর্ঘটনার শঙ্কায় একপর্যায়ে চালক ট্রেন
চালাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ কারণে দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় স্টেশনে আটকে থাকে ট্রেন। পরে সদর থানা
পুলিশ ও জেলা পুলিশের হস্তক্ষেপে ছাদ থেকে অতিরিক্ত যাত্রী নামিয়ে আবার ট্রেন চলাচল শুরু হয়।
গাইবান্ধা রেল স্টেশনে আজ ১৮ আগস্ট রবিবার এ ঘটনা ঘটে। দুপুরে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের ছাদ
থেকে প্রায় দুই হাজার যাত্রীকে নামিয়ে দেয় পুলিশ। এরফলে লালমনিরহাট থেকে ঢাকাগামী আন্তনগর লালমনি
এক্সপ্রেস ট্রেন স্টেশনে প্রায় ১ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট আটকে থাকে।
জানা গেছে, লালমনিরহাট থেকে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস রবিবার সকাল ১১টা ৫৫ মিনিটে গাইবান্ধা রেল
স্টেশনে পৌঁছায়। এরআগে ট্রেন ছাড়ার পর ঈদের ছুটি শেষে বাড়ি থেকে ঢাকায় ফেরার জন্য বিভিন্ন স্টেশন থেকেই
অসংখ্য যাত্রী বগির ভেতর জায়গা না পেয়ে ছাদে উঠতে থাকে। গাইবান্ধায় আসতে আসতে প্রায় দুই হাজার যাত্রী
ট্রেনের ছাদে উঠে যায়। এতে ট্রেনটি চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। প্রথমে রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা
যাত্রীদের ছাদ থেকে নামাতে চেষ্টা করে। কিন্তু তারা ব্যর্থ হলে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে
সদর থানা পুলিশ ছাদে থাকা ২ হাজারের অধিক যাত্রীকে দুর্ঘটনার কবল থেকে রক্ষা করেন । পরে তাদের সহায়তায়
ছাদ থেকে সব যাত্রীকে নামিয়ে দিয়ে ১ঘন্টা ৪৫ মিনিট পর দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে গাইবান্ধা
ছাড়ে বলে স্টেশন মাস্টার জানান। উল্লেখ্য, গতকাল শনিবারও (১৭ আগস্ট) ট্রেনের ছাদে অতিরিক্ত যাত্রী ওঠায়
বগুড়ার সান্তাহার জংশন স্টেশনে লালমনিরহাট থেকে ঢাকাগামী আন্তনগর লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন স্টেশনে প্রায়
২ ঘণ্টা ১০ মিনিট আটকে থাকে। সান্তাহার জংশন স্টেশনের স্টেশনমাস্টার রেজাউল করিম জানান, বেলা ১টা ২৫
মিনিটে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনটি সান্তাহার স্টেশনে পৌঁছার কথা থাকলেও প্রায় তিন ঘণ্টা দেরিতে বিকেল ৪টা
১৫ মিনিটে ট্রেনটি স্টেশনে ঢোকে। স্টেশনে পৌঁছানোর পর ছাদে অতিরিক্ত যাত্রী থাকায় ও কয়েকটি বগির স্প্রিং
দেবে যাওয়ায় চালক ট্রেন চালাবেন না বলে জানান। অবস্থা বেগতিক দেখে রেলওয়ে জিআরপি পুলিশ ও নিরাপত্তা
বাহিনীর সদস্যরা ছাদের ওপর থেকে যাত্রী নামাতে শুরু করলে যাত্রীদের একাংশের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়।
প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় যাত্রীদের ছাদ থেকে নামানোর পর ৬টা ২৫ মিনিটে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com