মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ তীব্র নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অঙ্গীকার পুনর্ব্যাক্ত করেছে

বাংলাদেশ তীব্র নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অঙ্গীকার পুনর্ব্যাক্ত করেছে

নিউজিল্যান্ডের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় হতাহতের ঘটনায় বাংলাদেশ তীব্র নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দৃঢ় অঙ্গীকার পুনর্ব্যাক্ত করেছে।
রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ এক শোক বার্তায় বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় হতাহতের ঘটনায় আমরা গভীরভাবে মর্মাহত। আমরা এই জঘন্য সন্ত্রাসী ঘটনার নিন্দা জানাই।’
রাষ্ট্রপতি বার্তায় এ ঘটনায় প্রাণহানিতে গভীর শোক প্রকাশ এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।
নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা অর্ডেনের কাছে পাঠানো এক শোক-বার্তায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দু’টি মসজিদে গুলিবর্ষণের ঘটনা জানতে পেরে আমরা গভীরভাবে মর্মাহত।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের দৃঢ় অঙ্গীকার পুনর্ব্যাক্ত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা এই নৃশংস সন্ত্রাসবাদের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সকল ধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে তার দৃঢ় অঙ্গীকারে অবিচল এবং আমরা সব ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকা-ের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করি।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সন্ত্রাসবাদের হুমকি নির্মূলে নিউজিল্যান্ডসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে সহযোগিতা ও কর্মতৎপরতা অব্যাহত রাখবে।
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ ও সরকার এবং আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে এ ঘটনায় প্রাণহানিতে আন্তরিক সমবেদনা জানাই।’
তিনি আরো বলেন, আমরা নিউজিল্যান্ডের জনগণ ও সরকারের পাশে আছি এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন নিউজিল্যান্ডের উপ-প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইন্সটন পিটার্সের কাছে পাঠানো এক বার্তায় বলেন,‘ ক্রাইস্টচার্চে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা ও গোলাগুলিতে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুতরাসহ বেশকিছু মানুষের হতাহতের ঘটনায় আমরা স্তম্ভিত ও গভীরভাবে শোকাহত।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বার্তায় এ ঘটনাকে জঘন্য ও বর্বর অভিহিত করে ধর্মীয় উপাসনালয়ে বেসামরিক নিরীহ মানুষের ওপর এ ধরনের হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজিল্যান্ড সরকারকে সেখানে বসবাসরত বাংলাদেশী কমিউনিটি সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহণের অনুরোধ জানান।
তিনি এই মর্মান্তিক সময়ে নিউজিল্যান্ডের জনগণ ও সরকারের পক্ষে থাকার আশ্বাস দেন।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সকল ধরনের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করে বলে উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, এ ধরনের নির্মম ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য এই সহিংসতাকে সম্ভাব্য শক্ত হাতে মোকাবেলা করতে হবে।
শুক্রবার জুমার নামাজ আদায়কালে একাধিক হামলায় এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা অর্ডেন এই ঘটনাকে ‘নিউজিল্যান্ডের অন্ধকারতম দিন’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।
হামলার সময় সেন্ট্রাল ক্রাইস্টচার্চের মসজিদ আল-নূরে মুসল্লিদের অনেক ভিড় ছিল। ক্রাইস্টচার্চের উপ-শহর লিনউডে দ্বিতীয় আরেকটি মসজিদেও হামলা চালানো হয়েছে।
স্থানীয় মিডিয়ার খবরে অন্তত ৪৯ জন নিহত ও বহুসংখ্যক আহত হওয়ার কথা জানানো হয়েছে এবং সাউথ আইল্যান্ডের এই নগরীটিতে কঠোর নিরাপত্তা অবস্থা বজায় রয়েছে।(বাসস)

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com