সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৫১ অপরাহ্ন

কলকাতা যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে দু’জন গ্রেফতার

কলকাতা যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে দু’জন গ্রেফতার

কলকাতা যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে দু’জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সন্ধ্যায় বজবজ থানার চিত্রিগঞ্জ বাজার এলাকায়। ধৃতদের নাম শেখ আমির এবং রোহিত সাউ।

কয়েক সপ্তাহ আগেও খবরে এসেছিল চিত্রিগঞ্জ বাজার এলাকা। সেখানে নিজের দলীয় অফিসে কর্মীদের সঙ্গে বসে থাকাকালীন শাসক দলের কাউন্সিলর মিঠুন টিকারদারকে ভরসন্ধ্যায় দুই দুষ্কৃতী গুলি করে পালিয়েছিল। সন্ধ্যায় জমজমাট বাজারে দুষ্কৃতীরা গুলি করে মোটরসাইকেল চালিয়ে চম্পট দেওয়ায় আতঙ্ক ছড়িয়েছিল। এর কয়েক দিন পরে মহেশতলা থানা এলাকা থেকে দুই মূল অভিযুক্তকে ধরা হয়। সোমবার ভরসন্ধ্যায় ফের

ওই বাজারের কাছ থেকেই এক যুবতীকে প্রায় তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় এলাকার আইনশৃঙ্খলা তলানিতে ঠেকার অভিযোগ করছেন স্থানীয়েরা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের, ওই সন্ধ্যায় ভাইয়ের বন্ধুর সঙ্গে চিত্রিগঞ্জ বাজারে গিয়েছিলেন ওই যুবতী। অভিযোগ, আমির ও রোহিত নামে স্থানীয় দুই যুবক তাঁদের পথ আটকে দাঁড়ায়। ওই যুবতীর সঙ্গীকে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয় আমির এবং রোহিত। অভিযোগ, ওই যুবতীকে বাজার থেকে কিছুটা দূরে একটি জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে দুই দুষ্কৃতী। ঘটনার পরে ওই যুবতী বাড়ি ফিরে পরিজনেদের পুরো বিষয়টি জানান। এর পরেই সোমবার রাতে পুলিশের কাছে ওই ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযাগের ভিত্তিতে চিত্রিগঞ্জ বাজার এলাকার বাসিন্দা ওই দুই দুষ্কৃতীকে ধরা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার ওই যুবতীর মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা।

যুবতীর পরিবার সূত্রের খবর, দিন কুড়ি পরেই মেয়েটির বিয়ে ঠিক হয়ে রয়েছে। অনুষ্ঠানের সব আয়োজন প্রায় শেষ। যুবতীর বাবা বলেন, ‘‘ওই দিন ফুচকা খাবে বলে মেয়ে খুব বায়না করছিল। তাই মেয়েটা ভাইয়ের বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে চিত্রিগঞ্জ বাজারে গিয়েছিল সে।’’ আমির ও রোহিত যে বেশ কিছু ক্ষণ ধরে তাঁদের পিছু নিয়েছিল, তা দু’জন টের পাননি। বাড়ি ফেরার পথেই যুবতীর উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, ওই এলাকা এখন দুষ্কৃতীদের স্বর্গরাজ্য হয়ে উঠেছে। দিনরাত তাদের অবাধে আড্ডা চলে সেখানে। এ জন্য পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগও তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ডায়মন্ড হারবার জেলা পুলিশের এক কর্তার অবশ্য দাবি, ‘‘ওই এলাকার আইনশৃঙ্খলার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে টহলদারির ব্যবস্থা হচ্ছে। দুষ্কৃতীরা কোথায় জমায়েত করছে, সে বিষয়ে নজরদারি শুরু করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com