সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৯:০১ অপরাহ্ন

ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণের আহবান জানিয়েছেন:মোহাম্মদ নাসিম।

ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণের আহবান জানিয়েছেন:মোহাম্মদ নাসিম।

বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট থেকে নব নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণের আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখাপত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।
তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের অনুরোধ করবো আপনারা সংসদ সদস্য হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন। শপথ গ্রহণ করে সংসদে ইতিবাচক রাজনীতি করবেন।
মোহাম্মদ নাসিম আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৪ দলের মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, ‘যা পেয়েছেন তাই নিয়ে আসুন, আমরা রাজনীতি করে সংসদে ইতিবাচক ভূমিকা রাখি। মাথা গরম করে আপনাদের ক্ষতি হয়েছে। তাই আর মাথা গরম না করে ইতিবাচক রাজনীতিতে আসুন।
নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিত প্রার্থীদের শপথ না নেওয়ার ঘোষণা প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, ‘তারা অনেক কথা বলেছেন, কিন্তু নিজেরাই কোনো কথা রাখেননি। তারা বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচন করবেন না। এখন শপথ গ্রহণ করবেন না বলেছেন। আমি বিশ্বাস করি, তারা শপথ গ্রহণও করবেন।
নির্বাচনে মহাজোটের নিরঙ্কুশ জয়ে ভোটারসহ দেশের জনগণকে ১৪ দলের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘এই বিজয় গণতন্ত্রের বিজয়। এই বিজয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবিস্মরণীয় নেতৃত্বের বিজয়। গত ১০ বছরে তিনি জঙ্গি দমন করেছেন, বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করেছেন, অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছেন।
কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা প্রতিশ্রুতি দিয়েছি, আমরা চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছি, বাংলার জনগণ প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আস্থা রেখেছে। আমরা অব্যশই তার নেতৃত্বে জনগণের এই আস্থার মর্যাদা দেবো। এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে আমরা আগামী পাঁচ বছর পরে বিজয়ের লক্ষ্যে এগিয়ে যাব।’
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনী মাঠে এসে লড়াই করেছে। জয়-পরাজয় যাই হোক না কেন, তাদের প্রতি আমাদের সবসময় শ্রদ্ধাবোধ আছে, সম্মান আছে। আমি বিশ্বাস করি, তারা পার্লামেন্টে থাকবেন এবং ইতিবাচক ভূমিকা রাখবেন।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে পুনঃভোটের দাবিতে ইসিতে স্মারকলিপির কর্মসূচির বিষয়ে তিনি বলেন, এই নির্বাচন জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত হয়েছে। জনগণ প্রকাশ্যে ভোট দিয়েছে, সবাই দেখেছে। তাই তাদের এই দাবিটা হাস্যকর।
মহাজোট সরকার দেশ ও জনগণের উন্নয়নে একাগ্রভাবে কাজ করে চলেছে বর্ণনা করে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, মহাজোট সরকার পোশাক শিল্প, কৃষকের সার ও বীজ নিয়ে মাথা ঘামায়, নারীর উন্নয়নের বিষয়ে কথা বলে। এসকল কারণেই জনগণ মহাজোটকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে।
তিনি বলেন, এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাজোটকে সাবধানে এগিয়ে যেতে হবে।সাম্প্রদায়িক শক্তির ছাপ এখনও রয়ে গেছে। এটাকে পরিষ্কার করতে হবে।
এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের উপ দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জাসদ (ইনু) সাধারণ সম্পাদক শিরীন আকতার, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।(বাসস)

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com