শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০, ০২:০২ পূর্বাহ্ন

ড. কামাল হোসেনের নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ উদ্বিগ্ন।

ড. কামাল হোসেনের নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ উদ্বিগ্ন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে অনেকটা আকস্মিকভাবে একদল পুলিশ কর্মকর্তা প্রবেশ করেন। তারা তাকে বলার চেষ্টা করেন, তার নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ উদ্বিগ্ন। কামাল হোসেন তাদের জানিয়ে দেন, তার নিরাপত্তার প্রয়োজন নেই। তিনি যেভাবে আছেন সেভাবেই ভালো আছেন।

এর আগে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। সেখানেও একই উদ্বেগের কথা জানান পুলিশ কমিশনার। কামাল হোসেনের চেম্বারে পুলিশ প্রবেশ করেছে খবর চাউড় হওয়ার পর মিডিয়া কর্মীদের মধ্যে দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়ে যায়। কামাল হোসেন মিডিয়া কর্মীদের বলেন, তার নিরাপত্তা নিয়ে পুলিশ উদ্বেগ জানিয়েছে।

বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে কামাল হোসেনের বক্তব্য রাখার কথা ছিল। কিন্তু তিনি উপস্থিত হননি। গণফোরামের কেন্দ্রীয় নেতা জগলুল হায়দার আফ্রিক কামাল হোসেনের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে আইন-আদালত, পুলিশসহ অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, আওয়ামী লীগ, সর্বোপরি নির্বাচন কমিশন স্বয়ং কাজ করছেন। ধারাবাহিকভাবে প্রতিটি নির্বাচনী এলাকায় হামলা-মামলা, গ্রেপ্তার, প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে।

ওদিকে, নির্বাচনী সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে। সর্বশেষ খবরে জানা যায়, হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী ড. রেজা কিবরিয়ার বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালিয়েছে। এ সময় পুলিশ ৫০ জন নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করে। বিক্ষুব্ধ জনতা সড়ক অবরোধ করে। হামলা হয়েছে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহিমের গাড়ি বহরে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ঠাকুরগাঁও, ঢাকা, হবিগঞ্জ, নোয়াখালী, পাবনা, যশোর, টাঙ্গাইল, কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। ঝিনাইদহে নাশকতার মামলায় ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী মতিয়ার রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বিএনপি’র আরো ৩ প্রার্থীর প্রার্থিতা স্থগিত হয়েছে আদালতে। উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ না করে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় তাদের প্রার্থিতা স্থগিত করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com