শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৭ অপরাহ্ন

ভারতের ভুয়ো খবর ছড়াতে বেশি তৎপর হিন্দু জাতীয়তাবাদী গোষ্ঠীগুলিই, প্রকাশ রিপোর্টে

ভারতের ভুয়ো খবর ছড়াতে বেশি তৎপর হিন্দু জাতীয়তাবাদী গোষ্ঠীগুলিই, প্রকাশ রিপোর্টে

গুজবে  আবার উন্মত্ত ভারতের জনতা। বল্গাহীন হিংসা এবং মৃত্যু। বাড়তে থাকা সেই তালিকায় শেষতম সংযোজন সুবোধকুমার সিংহ। উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে গোহত্যার গুজবে উন্মত্ত জনতা পিটিয়ে মারল কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারকে।

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫। সে দিন এই তালিকায় ঢুকেছিল মহম্মদ আখলাকের নাম। উত্তরপ্রদেশের দাদরিতে সে দিনও গুজব রটেছিল, তাঁর বাড়িতে গরুর মাংস রয়েছে। সেদিনও উত্তেজিত হয়েছিল জনতা। পিটিয়ে মারা হয়েছিল ৫২ বছরের মহম্মদ আখলাককে।

৩০ মে, ২০১৫। রাজস্থানের জয়পুর থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে বীরলোকা গ্রামের ভাগাড়ে পাওয়া গিয়েছিল ২০০টি গরুর মৃতদেহ। দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছিল গুজব। গোহত্যায় মেতেছেন স্থানীয় মাংস বিক্রেতা আব্দুল গফফর কুরেশি, এই অভিযোগে তাঁকে পিটিয়ে মারে উত্তেজিত জনতা। পরে জানা যায়, স্থানীয় এক ঠিকাদার পুরসভার অনুমতি নিয়েই এই মৃত গরুগুলি ভাগাড়ে ফেলেছিলেন। এর সঙ্গে কুরেশির কোনও যোগ ছিল না।

ভুয়ো খবর, গুজব, উন্মত্ত জনতা এবং গণপিটুনি। একই চিত্রনাট্য, শুধু বদলে যাচ্ছে স্থান, কাল এবং পাত্র। আর এই রঙ্গমঞ্চ শুধু বুলন্দশহর, দাদরি বা জয়পুর নয়। মারণ ভাইরাসের মতো তা দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে সারা ভারতে। অসম থেকে কর্নাটক, ত্রিপুরা থেকে গুজরাত। ছবিটা প্রায় এক সব জায়গাতেই।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com