বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন

আপিল শুনানীর শেষ দিনে ২৩৩ জনের আবেদনের নিষ্পত্তি করছে ইসি

আপিল শুনানীর শেষ দিনে ২৩৩ জনের আবেদনের নিষ্পত্তি করছে ইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দায়ের করা আপিল আবেদন শুনানীর আজ শেষ দিনে ২৩৩টি আবেদনের নিষ্পত্তি করছে নির্বাচন কমিশনে (ইসি)।
রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) মোট ৫৪৩ জন আপিল করেছেন। এর মধ্যে গত দুইদিন ৩১০ জনের আপিল আবেদনের শুনানী নিষ্পত্তি করা হয়েছে।
আপিল শুনানীতে দুই দিনে ১৫৮ জন প্রার্থিতা ফেরত পেয়েছেন। বাতিল বা খারিজ হয়েছে ১৪১ জনের আপিল। বাকি ১১টি আবেদন স্থগিত রাখা হয়।
প্রথম দিন বৃহস্পতিবার ১৬০ জনের আবেদনের শুনানী শেষে ৮০ জন প্রার্থীর আবেদন গ্রহণ করে তাদের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়, রিটার্নিং কর্মকর্তার মনোনয়ন বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রেখে ৭৬ জনের আবেদন খারিজ করে এবং ৪ জন প্রাথীর আবেদন স্থগিত করা হয়।
দ্বিতীয় দিন শুক্রবার ১৫০ জনের শুনানী শেষে ৭৮ জন প্রার্থীর আবেদন গ্রহণ করে তাদের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়, রিটার্নিং কর্মকর্তার মনোনয়ন বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল রেখে ৬৫ জনের আবেদন খারিজ করে এবং ৭ জন প্রাথীর আবেদন স্থগিত করে ইসি।
আপিল আবেদনের ওপর আজ শেষ দিনের শুনানী অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ ৩১১ থেকে ৫৪৩ নম্বর পর্যন্ত অর্থাৎ ২৩৩ জনের আপিল আবেদনের শুনানি হচ্ছে।
সকাল ১০টায় নির্বাচন কমিশন ভবনের অস্থায়ী এজলাসে এ শুনানী শুরু হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, বেগম কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী আপিল শুনানী করছেন। ইসি সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদও উপস্থিত রয়েছেন।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা ও মির্জা আব্বাসের মনোনয়ন বিষয়েও আজ শুনানী করবে ইসি।
২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে ২ হাজার ২৭৯টি মনোনয়নপত্র বৈধ ও ৭৮৬টি বাতিল ঘোষণা করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। রিটার্নি কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সংক্ষুব্দ ব্যক্তিরা গত ৩ ডিসেম্বর ৮৪টি, ৪ ডিসেম্বর ২৩৭টি এবং গতকাল শেষ দিনে ২২২টিসহ মোট ৫৪৩টি আবেদন দায়ের করেন।
আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর থেকে প্রার্থী ও তার সমর্থকরা নির্বাচনী এলাকায় প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারবেন।(বাসস)

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com