বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:০৭ অপরাহ্ন

ফ্রান্সের বাজেটে জ্বালানির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার।

ফ্রান্সের বাজেটে জ্বালানির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার।

লাগাতার বিক্ষোভ-প্রতিবাদের জেরে অবশেষে নরম ফ্রান্স  সরকার। আগামী বাজেটে জ্বালানির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করল ফ্রান্স।

প্রাথমিক ভাবে ঠিক হয়েছিল, আগামী ছ’মাসের জন্য স্থগিত রাখা হবে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত। কিন্তু চাপের মুখে পড়ে প্রধানমন্ত্রী এদুয়া ফিলিপ ঘোষণা করলেন, ২০১৯ সালের নয়া বাজেট বিল থেকে জ্বালানি কর বসানোর বিষয়টি বাদ দেওয়া হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাকরঁর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রতিবাদকারীরা। তবে ক্ষোভের আঁচ পুরোপুরি নিভছে না। বিক্ষোভকারীরা বলছেন, ‘সিদ্ধান্ত নিতে বড্ড দেরি করে ফেলল সরকার।

জ্বালানির লাগামছাড়া দামবৃদ্ধির প্রতিবাদে সপ্তাহ তিনেক আগে পথে নেমেছিল ফ্রান্স। বিশেষত ডিজেলের উপর কর বসার সিদ্ধান্ত ঘিরে তৈরি হয় ক্ষোভ। কারণ, অনান্য জ্বালানির তুলনায় অপেক্ষাকৃত সস্তা হওয়ায় এত দিন ডিজেলই উপরেই ভরসা ছিল নাগরিকদের বড় অংশের। বিশেষত শহরের বাইরের বাসিন্দাদের। কিন্তু মাকরঁ জানিয়েছিলেন, জ্বালানির দাম না বাড়ালে পরিবেশ দূষণ ঠেকানো অসম্ভব।

বুধবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে প্রধানমন্ত্রী ফিলিপ বলেন ‘আগামী বাজেটে দাম বাড়ছে না জ্বালানির। সরকার আলোচনায় বসতে প্রস্তুত। প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার আগেই, সপ্তাহের শেষে আরও বড় বিক্ষোভের হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন হলুদ জ্যাকেটধারীরা। গত কাল এক সাক্ষাৎকারে বিক্ষোভকারীদের এক নেত্রী জানিয়েছেন, জ্বালানির দাম বৃদ্ধি নিয়ে আন্দোলনের শুরু ঠিকই। তবে মাকরঁ ‘নীরবতা’ তাতে ইন্ধন জুগিয়েছে। তাঁর কথায়,‘জনতা চান, প্রেসিডেন্ট সোজাসাপ্টা ভাবে নিজের দোষ স্বীকার করুন। যা নাগরিকদের হৃদয় ছুঁয়ে যাবে।

জ্বালানির দাম আপাতত না বাড়লেও শান্ত হচ্ছে না ফ্রান্স। ‘ইয়েলো ভেস্ট’ বিক্ষোভকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আগামী সপ্তাহে নতুন করে পথে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছে শ্রমিক ও কৃষক ও ছাত্র সংগঠন।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com