রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে স্থানীয়করণের প্রস্তাব বিশেষজ্ঞদের

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে স্থানীয়করণের প্রস্তাব বিশেষজ্ঞদের

জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ প্রত্যাবাসন শুরুর চেষ্টা করলেও রোহিঙ্গা এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আপত্তির কারণে তা শুরু হয়নি। মিয়ানমারে নিরাপদ পরিবেশ ও নাগরিকত্ব নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত প্রত্যাবাসন অনেকটা অনিশ্চিত। এছাড়া আরও নানা কারণে রোহিঙ্গা সমস্যাটি দীর্ঘায়িত হতে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর তা মাথায় রেখেই দীর্ঘমেয়াদী মানবিক সেবা দিতে সংশ্লিষ্ট সবার সমন্বিত প্রয়াস দরকার বলে অভিমত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
“Rohingya Response and Grand Bargain Commitments: Aid transparency and solidarity approach”শীর্ষক এক আলোচনায় বিশেষজ্ঞরা এই অভিমত ব্যক্ত করেন।
রবিবার কক্সবাজারে স্থানীয় সিভিল সোসাইটি ও উন্নয়ন সংস্থাগুলোর প্লাটফর্ম সিএসও এনজিও ফোরাম আয়োজিত এই আলোচনায় বিশেষজ্ঞরা আরও বলেন, যৌথ সাড়া দান পরিকল্পনার চাহিদার ৭২ শতাংশ অনুদান বর্তমানে পাওয়া গেলেও ভবিষ্যতে বিশ্বের অন্য কোথাও নতুন সংকট তৈরি হলে অনুদান প্রাপ্তির হার কমে যেতে পারে। তখন রোহিঙ্গাদের মানবিক সেবা দিতে তহবিল গঠনে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হবে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ এবং কক্সবাজারের স্থানীয় জনগণকে আরও বেশি সহনশীলতা এবং পেশাদারিত্বের সাথে মানবিক সেবা অব্যাহত রাখার প্রস্তুতি নিতে হবে। এজন্য আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী দ্রুত স্থানীয়করণ বাস্তবায়ন করা জরুরী।
আলোচনায় স্থানীয়রা অভিযোগ তুলেন, রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কক্সবাজারের স্থানীয় জনগোষ্ঠীর প্রতি শ্রদ্ধা জানালেও স্থানীয় করণ বাস্তবায়নে বেশি সময় নিচ্ছে। যেসব স্থানীয় উপকারভোগীর সামাজিক বনায়ন কেটে রোহিঙ্গা ক্যাম্প গড়ে উঠেছে; তাদের একজনও এখনো ক্ষতিপূরণ পাননি। এছাড়া অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পারিপার্শ্বিক নানা কারণে স্থানীয়রা বিপর্যস্ত। বরং দিনে দিনে উপেক্ষিত হচ্ছেন স্থানীয়রা।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com