শনিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:২৫ পূর্বাহ্ন

নয়া পল্টনের সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে:আওয়ামী লীগ।

নয়া পল্টনের সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে:আওয়ামী লীগ।

নয়া পল্টনের সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে। এটিকে নির্বাচনপূর্ব সহিংসতা বিবেচনায় যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) প্রতি দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ।
আজ সন্ধ্যায় নির্বাচন ভবনে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে দলের নির্বাচন পরিচালনা বোর্ডের কো-চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম এসব কথা বলেন।
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ আর পেছানো যাবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা পরিস্কার বলেছি, ৩০ তারিখ পর্যন্ত নির্বাচন পিছিয়েছেন, আর নয়। একদিনও নয়, একঘন্টাও নয়।’
এর আগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধি দল ইসিতে গিয়ে নির্বাচন ৩ সপ্তাহ পেছানোর দাবি করেন।
বিএনপির দাবি হাস্যকর উল্লেখ করে এইচটি ইমাম বলেন, ‘এর আগেও ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচন হয়েছে সেসময় কিন্তু বড় দিন কিংবা ইংরেজি নতুন বছর কোনো সমস্যা হয়নি। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন হলে কেউ যে আসবেন না তেমন কোনো বিষয় নয়। পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই, যারা বিদেশিদের সুযোগ সুবিধার কথা ভেবে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করে। আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ। আমরা আমাদের সুযোগ সুবিধা দেখব।’
ডিসেম্বরের পরে নির্বাচনের নেতিবাচক দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, ডিসেম্বরের পরে নির্বাচন হলে পহেলা জানুয়ারি কয়েক লাখ নতুন ভোটার হবে। তারা যদি নিবন্ধিত না হয়, তাহলে আদালতে রিট করলে নির্বাচন ভন্ডুল হয়ে যাবে। এটার দায়দায়িত্ব কে নেবে? এছাড়া বছরের প্রথমে স্কুলে নতুন বই বিতরণ করা হয়। সেখানেও সমস্যা দেখা দিবে।
পুনঃনির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর এবং ভোট গ্রহণ ৩০ ডিসেম্বর।

Please Share This Post in Your Social Media




© All rights reserved © 2017 Asiansangbad.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com