শিরোনাম :
রাজধানীর উত্তরায় জাল টাকা বাজারজাত করতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে দুই যুবক। হবিগঞ্জে মাদকের বিশেষ অভিযান গ্রেফতার ৩৪ মুক্তিযোদ্ধার অসম্মানজনক দাফনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : মোজাম্মেল হক স্থায়ী প্রতিনিধির সঙ্গে মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ গায়ক বব ডিলানের একটি গিটারের নিলামে মূল্য উঠেছে অর্ধ মিলিয়ন ডলার। রাশিয়াজুড়ে ৭ হাজার ৪শ’ হেক্টরের বেশি বনাঞ্চলে দাবানল রফতানি উন্নয়ন তহবিলের ঋণসীমা বাড়লো ২০১৭ সালের তৃতীয় বর্ষ অনার্স বিশেষ পরীক্ষার্থীদের অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ ২৩ মে থেকে শুরু হ আরেকটি বড় অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ ভ্রাম্যমান আদালত ৪০০ মন আম ও ৪৮৬ কাদি কলা ধ্বংস করে।

বাজেটে মানব সম্পদ উন্নয়ন ও শিক্ষাখাত অগ্রাধিকার পাচ্ছে : অর্থমন্ত্রী

মানব সম্পদ উন্নয়ন, স্বাস্থ্য ও শিক্ষাখাতকে অগ্রাধিকার দিয়ে আগামী ৭ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার বাজেট পেশ করবেন। বুধবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অর্থনৈতিক সংবাদদাতাদের সংগঠন ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সদস্যদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনায় অর্থমন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘এবারের বাজেটে মানব সম্পদ উন্নয়ন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও স্যানিটেশন খাতকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। তবে বরাদ্দ বেশি থাকবে পরিবহন ও জ্বালানী খাতে। ৩০ জুন বাজেট পাস হবে।’

আগামী বাজেটের আকার প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বাজেটের আকার ৪ লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার মত হবে। আগামী ৪ থেকে ৫ দিনের মধ্যে সেটি চূড়ান্ত হয়ে যাবে। তবে এই ফিগারকে স্ট্যান্ডার্ড ধরে আকার চূড়ান্ত করা হবে।’
বাজেটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিওভূক্তিতে অর্থ বরাদ্দ থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এবারের বাজেটে এমপিওখাতে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হবে। তবে সেটি কেবল শিক্ষকদের বেতনের জন্য নয়। প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়ন ব্যয়ও এর মধ্যে থাকবে।

তিনি জানান, মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ক্রমে জাতীয়করণ করা হবে।এর অংশ হিসেবে এবার কিছু নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তিতে বরাদ্দ দেওয়া হবে। এমপিও সংস্কারের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় খুব বেশি আগ্রহী নয় বলে তিনি অভিযোগ করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন,আগামী বাজেটে স্কুল বাস নামানোর বিষয়ে ঘোষণা থাকবে।বর্তমানে দেশে করপোরেট ট্যাক্স বেশি। আগামী বাজেটে এটা কিছুটা কমানো হবে বলে জানান তিনি। চলতি অর্থবছর শেষে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়বে। করপোরেট করহার এ বছরের বাজেটে পরিবর্তন (কমানো) করা হবে। তবে ট্যাক্সের পরিধি বাড়বে। আমরা আশা করছি, ২০২৫ সালের মধ্যে দেশের ৫০-৬০ শতাংশ লোক ট্যাক্স দেবে।

এক প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী জানান, আগামী বাজেট হবে, তার জীবনের শ্রেষ্ঠতম বাজেট। আগামী ৭ জুন তিনি অর্থমন্ত্রী হিসেবে দ্বাদশতম বাজেট পেশ করবেন।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে মুহিত বলেন, ‘চিনিশিল্প পুরোপুরি আখের ওপর নির্ভরশীল নয়।এই শিল্পকে ট্যারিফ দিয়ে বাঁচিয়ে রাখতে হয়। অথচ বিদেশ থেকে আমদানি করলেই আমরা এই চিনি কম দামে পেতে পারি। কাজেই আমার মতে, চিনিশিল্প রাখা উচিত নয়।’

ইআরএফের সভাপতি সাইফ ইসলাম দিলালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া, অর্থসচিব মুসলিম চৌধুরী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..