শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের ভূমিকায় পূর্ণ সংহতি প্রকাশ নেতাদের উন্নয়ন পেতে হলে নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে: শিল্পমন্ত্রী ইংল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের নতুন নির্বাচক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন এড স্মিথ। জাপান উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় দেশে ফিরেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি অর্থবছরের প্রথম ৮ মাসে যুক্তরাষ্ট্রে রফতানিতে ১.৬২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ঝালকাঠিতে কৃষকের মধ্যে সার ও বীজ বিতরণ ইয়াবাসহ যাত্রাবাড়ীতে ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নিয়োগ পরীক্ষায় ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার গ্রেফতার ৫ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের সাথে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময়

১১ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য আমদানির পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার : বদরুল হাসান

সরকার আগামী অর্থবছরের জন্য (২০১৮-১৯) আরো ১১ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য আমদানির পরিকল্পনা নিয়েছে। আজ খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুল হাসান বলেন, আমরা দেশের খাদ্য চাহিদা মেটাতে আগামী অর্থবছরের জন্য বিদেশ থেকে ৭ লাখ মেট্রিকটন চাল ও ৪ লাখ মেট্রিকটন গম আমদানি করতে প্রস্তুত।
তিনি বলেন, দেশে খাদ্য পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে এবং বোরো ধান সংগ্রহ কার্যক্রম কয়েক মাসের মধ্যেই শুরু হবে, তাই শিগগিরই খাদ্য আমদানির প্রয়োজন নেই। কিন্তু প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে দেশে উৎপাদিত ফসলের ক্ষতির আশংকা থেকে সরকার ১১ লাখ মেট্রিকটন খাদ্য আমদানির ব্যবস্থা নিয়েছে।
সরকার ইতোমধ্যে চলতি অর্থবছরে (২০১৭-১৮) ১০ লাখ মেট্রিকটন খাদ্য আমদানি করেছে।
দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল হাওর এলাকায় আকস্মিক বন্যায় খাদ্য শস্যের বিশেষ করে বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি কারণে চালের মজুদ হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি দেশের বাজারে চালের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় গত অর্থবছরে চাল আমদানি বৃদ্ধি পায়। সরকার চলতি অর্থবছরে ভিয়েতনাম, ভারত, থাইল্যান্ড, কম্বোডিয়া ও রাশিয়া থেকে জি টু জি পদ্ধতিতে ১০ লাখ ৮০ হাজার ধান ও চাল আমদানি করেছে। ৮ লাখ ১৮ হাজার টন চাল ও গম ইতোমধ্যেই বন্দর থেকে খালাস করা হয়েছে। অবশিষ্ট ২ লাখ ৬৮ হাজার টন খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে।
বর্তমানে খাদ্যগুদামে ৯ লাখ ৭০ হাজার টন চাল ও ৩ লাখ ৬২ হাজার টন গম মজুদ রয়েছে। (বাসস)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..